যৌন স্বাস্থ্য সুরক্ষায় এড়িয়ে যেতে হবে যে ৬টি খাবার

সুখী দাম্পত্য জীবনের জন্য প্রয়োজন সুস্থ যৌন স্বাস্থ্য। দাম্পত্য জীবনে শারীরিক সম্পর্কে সুখী হতে না পারলে দম্পতিদের মধ্যে ধীরে ধীরে মানসিক ও শারীরিক দূরত্ব সৃষ্টি হয়ে যায়। ফলে পরকীয়া, অশান্তি কিংবা সংসার ভাঙার মতন সমস্যাও সৃষ্টি হয়ে যায়।আমরা প্রতিদিন যে খাবারগুলো খাচ্ছি তা কি আমাদের যৌন স্বাস্থ্যের ক্ষতি করছে? সুস্থ যৌন স্বাস্থ্যের জন্য কিছু বিশেষ খাবার এড়িয়ে চলা উচিত। বিশেষ কিছু খাবার আছে যেগুলো শরীরে যৌন উত্তেজনা কমিয়ে দিতে ভূমিকা রাখে। আসুন জেনে নেয়া যাক যৌন স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এমন ৬টি খাবার সম্পর্কে।

অ্যালকোহল
যারা অ্যালকোহল গ্রহণ করে তারা অ্যালকোহল সম্পর্কে নেতিবাচক কিছু শুনতে রাজি নন। কিন্তু নিয়মিত অ্যালকোহল গ্রহণ করলে পুরুষের টেস্টসটেরন হরমোনের উৎপাদন কমে যায় এবং যৌন জীবন মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

দুগ্ধজাতীয় খাবার
অবাক হচ্ছেন? দুধকে আমরা আদর্শ খাবার হিসেবেই জানি। কিন্তু দুগ্ধজাতীয় কিছু খাবার, যেমন- পনির, ছানা ইত্যাদি শরীরে এক ধরণের এস্ট্রোজেন তৈরী করে যা যৌন উত্তেজনা কমিয়ে দিতে পারে। তাই অতিমাত্রায় দুগ্ধ জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলুন।

কফি
প্রতিদিন অতিরিক্ত কফি পান করলে যৌন জীবন ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। অতিরিক্ত কফি খেলে অ্যাডরেনাল গ্ল্যান্ডের উপর প্রভাব পড়ে এবং ফলাফল হিসেবে স্ট্রেস হরমোন উৎপন্ন হয়। স্ট্রেস হরমোন উৎপাদনের কারণে সেক্স হরমোন ও থাইরয়েড হরমোনের উপর বিরূপ প্রভাব পড়ে ও ক্রমশ যৌন জীবন ফিকে হয়ে আসে।

পুদিনা
কিছু গবেষণায় জানা গিয়েছে যে পুদিনা যৌন উত্তেজনা কমিয়ে দিতে পারে। পুদিনায় উপস্থিত পিপারমিন্ট শরীরের যৌন উত্তেজনা কমিয়ে দিতে ভূমিকা রাখে।

কৃত্রিম চিনি
অনেকেই মেদ কমাতে কিংবা ডায়াবেটিসের জন্য কৃত্রিম চিনি ব্যবহার করেন খাবারে। কিন্তু কৃত্রিম চিনি যৌন স্বাস্থ্যের ক্ষতির কারণ হতে পারে। কৃত্রিম চিনি শরীরে যৌন উত্তেজনা সৃষ্টিকারী হরমোন সেরোটোনিনের উৎপাদন কমিয়ে দেয়। সেরোটোনিনের ঘাটতির ফলে বিষণ্ণতা, মাথা ব্যথা ইত্যাদি সমস্যাও হতে পারে।

তেলে ভাজা পোড়া খাবার
তেলে ভাজা খাবারে ট্রান্স ফ্যাটের উপস্থিতি পাওয়া যায় যা যৌন উত্তেজনা কমিয়ে দিতে ভূমিকা রাখে। ট্রান্স ফ্যাটের উপস্থিতির কারণে টেস্টেসটেরনের উৎপাদন কমে যায় এবং পুরুষের স্পার্মের গুণগত মান কমিয়ে দেয়। তাই গবেষকরা ভাজা পোড়া খাবারের বদলে বেক করা খাবার খাওয়ার পরামর্শ দি

 

Leave a Comment


NOTE - You can use these HTML tags and attributes:
<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>