Monthly Archives: July 2014

আমাদের পরিবারের সদস্য সংখ্যা কাজের মেয়ে সহ চারজন্। আমি মা, আর আমার দুই বছরের বড় বড়বোন, আর বাবা দেশের বাইরে থাকে। আপা সবে মাত্র কলেজে পা রেখেছে। আমার আপার নাম রোজি। আম্মা প্লান করলো ১সপ্তাহের জন্য মামার বাসায় বেড়াতে যাবে। আমি একা থাকবো সে কথা চিন্তা করে, আপাকে হোষ্টেল থেকে নিয়ে এল। আম্মা তারপরের দিন রাতের বাসে রওনা দিল। রাতে আপা আর আমি একসাথে খাওয়া শেষে করলাম, আপা ওষুধ খেল। আমি জিজ্ঞেস করলাম কিসের ওষুদ বলল-ঘুমের ঔষধ। ইদানিং নাকি ওর মোটেই ঘুষ আসেনা। কিছুক্ষণের মধ্যেই আপা ঘুমিয়ে পড়ল। আমি ডেকে টেষ্ট করলাম ঘুমিয়ে গেছে না… Read Article →

যে গল্পটি আমি বলতে যাচ্ছি, বেশ আগের। কিন্তু এখনো যেন টাটকা। ঘটনাটি আমার বিবাহিত বোন অনুর সাথে। অনুর আমার থেকে প্রায় ১০ বছরের বড়। দুলাভাই একজন ব্যবসায়ী। ঘটনাটি যখন ঘটে তখন বোনের কোলে ৬ মাসের ছেলে। যদিও সে ছিল চমৎকার দেহ পল্লবীর অধিকারী কিন্তু কখনও তাকে নিয়ে ভেবে দেখিনি। প্রায় ৩৮ সাইজের দুধ আর বিশাল পাছা, মাজা চিকন, যে কোন পুরুষ দু’বার তাকিয়ে দেখবে। যখন কেউ তার দিকে তাকায়, প্রথমেই তার দুধের দিকে নজর যাবে, তার পরে পাছা।গল্প শুরু করার আগে আমার দুলাভাইয়ের পরিবার সম্পর্কে বলি। শ্বশুর-শ্বাশুড়ী আর একজন ননদ নিয়ে আমার বোনের সংসার। এক… Read Article →

কলেজ হোস্টেলে সিট পাওয়াটা ছিল আমার জন্য দুধ-ভাত। কারন হোস্টেল সুপার ছিলেন সম্পর্কে আমার দূর সম্পর্কের দাদা। শুধু সিট পাওয়াই নয় আরো অনেক সুযোগ সুবিধাই আমি সেখানে ভোগ করতাম। যেমন, অন্যান্য রুমে চারজন করে ছাত্র থাকলেও আমার রুমে থাকতাম দুইজন। এছাড়া কলেজ লম্বা ছুটিতে হোস্টেলে কোন ছাত্র থাকার নিয়ম ছিল না কারন ক্যান্টিন বন্ধ থাকতো। কিন্তু আমি হোস্টেল ছাড়তাম না, রুমেই হিটার বসিয়ে নিজে রান্না করে খেতাম আর আমার কিছু বিশেষ বন্ধুর সাথে আড্ডা মারতাম, তাস-দাবা খেলতাম। আসলে এসবের প্রধান কারন ছিল, আমি একটা রাজনৈতিক দলের মোটামুটি উপর সারির কর্মী, ফলে আমার রুমটা দলীয় মিটিং… Read Article →

চাকরি করতেন আসামে ৷ গঙ্গার মা বাবা চা বাগানেই কাজ করেন , আর তাদের অল্প পয়সায় গঙ্গাকে লেখা পড়া করাতে পারবেন না বলে , লাচ্ছারাম গঙ্গারাম কে পাঠিয়ে দিলেন আসামে ৷ গঙ্গা সবে মাধ্যমিক পাশ করেছে ৷ পড়ার বালাই বাতাস নেই, দিন ভর চা বাগানের অল্প বয়েসী মেয়েদের দিকে তাকিয়ে তাকিয়ে কেটে যায় তার সময় ৷ লাচ্ছারাম পাহাড়ি বলে গঙ্গার শরীর মজবুত পেটানো ৷ আর দুগ্গা জানেন তার ছেলে গায়ে গতরে বেড়ে উঠেছে ৷ লেখা পড়া না শিখলে তার ছেলে বখে যাবে আর তাদের ছেলে মানুষ করার সপ্ন ভেঙ্গে যাবে ৷ লাচ্ছা রাম আর দুগ্গা… Read Article →

কুমকুম অনাথ হয়েছিলো অল্পবয়সে। বাবা-মা মারা গেলো রোড এক্সিডেন্টে। খুব অল্পই মনে আছে তাদের কথা। কি-ই বা বয়স! নিঃসন্তান কাকা-কাকীর কাছে মানুষ, যারা বুঝতে দেয় নাই পিতা-মাতার অভাব, নিজের সন্তানের মতই মানুষ করেছে।আজ সে উচ্ছল তরুণী। বিছানায় শুয়ে ছটফট করছে। মন ভালো নেই, অসহায় বোধকরছে। তার স্বপ্নের পুরুষ, তার ভালোবাসা! সে-ই কিনা তাকে কষ্ট দিলো! শ্যামল জানালো, বিয়ে করতে যাচ্ছে শমিতাকে, যার সাথে চলছে ইটিস পিটিস। এটা ঠিক, কুমকুম শমিতাকে ঘৃণা করে, তা না, বরং পছন্দই করে। কিন্তু মেনে নিতে পারছে না, শ্যামলের জীবনে তার অবস্থানটা দখল করে নেবে অন্য কেউ।বছর ছয়েক আগে, কাকীর মৃত্যুর… Read Article →

Scroll To Top