Monthly Archives: September 2015 - Page 3

আপন বোন যখন বউ

মলি একটা পেয়ারা হাতে নিয়ে দাদা শ্যমলের কাছে গিয়ে জিজ্ঞেস করল‍ ‘এই দাদা,
পেয়ারা খাবি?’ শ্যামল মাথা নিচু করে কি লিখছিল। তেমনি মাথা নিচু করেই জবাব
দিল, না।’

মালি বলল – দেখ না, বেশ বড় ডাঁসা পেয়ারা।

শ্যামল এবার মুখ তুলে বোনের দিকে তাকিয়ে বলল, দেখেছি তবে একটা খাব না। যদি
তিনটেই খেতে দিস, খেতে পারি।’ Read more »

ঘর থেকে মাল দেখা আর বউ বদল

আমার এক বন্ধুর আছে, বেশ ঘনিষ্ট, কিন্তু বাসায় আশা যাওয়া বা পারিবারিক সম্পর্ক
নেই, এক জন আরেক জনের অফিস এ যাতায়াত করি, ফোনে কথা হয় এবং খুব ই ফ্রী, সব
ধরনের কথায় হয়, আর কোনো কথায় মুখে আটকায় না, নিজের বউ আর পরের বউ কারো কথা
বলতে মুখে লাগাম নাই, কোনো মার্কেট কি আর রাস্তায় কোনো মেয়ে মানুষ দেখলে যা মুখে
আসে তাই বলে, নিজের বউ এর সাথে কি করে, কিভাবে করে ফিগার কেমন এমন ভাবে বলে
যে না দেখেও ও আন্দাজ করা যাই, ওর নাম লিটন, বেশ টিপ টপ আর পরিপাটি স্বভাবের, Read more »

বুড়ো বয়সে হাত মারা

দিল সাহেব সত্তুর ছুই ছুই বিপত্নীক অবসরপ্রাপ্ত উচ্চপদস্থ সরকারী কর্মকর্তা। ছেলেমেয়েরা দেশদেশান্তরে ছড়িয়ে। শহরে প্রাসাপোদম বাড়ীতে বাস করেন। পরিবারে
চাকরীজীবি পুত্র ও পুত্রবধু ছাড়া আর কেউ থাকেন না। আর আছে ড্রাইভার আর কাজের বুয়া। সারাদিন বাসায় একা থাকতে হয়, হাঁপিয়ে ওঠেন পত্রিকা পড়ে আর টিভি দেখে। মাঝে মাঝে কোর্টকাছারিতে ঘুরে বেড়ান, বন্ধুবান্ধবের বাসায় যান। বেকার লোকদের কেউ পাত্তা দেয় না। এমনকি বাসার কুৎসিত কাজের বুয়াটাও না। ওই বেটির না আছে চেহারা, না আছে শরীর, না আছে বয়স। বেটে কালো থ্যাবড়া নাকের বুয়াটাকে দেখলে তার মেজাজ খারাপ হয়ে যেত প্রথম প্রথম। সময়ে সয়ে এসেছে যদিও। তবু বেটির দেমাগ দেখে অবাক Read more »

ঘর থেকে মাল দেখা আর বউ বদল

আমার এক বন্ধুর আছে, বেশ ঘনিষ্ট, কিন্তু বাসায় আশা যাওয়া বা পারিবারিক সম্পর্ক
নেই, এক জন আরেক জনের অফিস এ যাতায়াত করি, ফোনে কথা হয় এবং খুব ই ফ্রী, সব
ধরনের কথায় হয়, আর কোনো কথায় মুখে আটকায় না, নিজের বউ আর পরের বউ কারো কথা
বলতে মুখে লাগাম নাই, কোনো মার্কেট কি আর রাস্তায় কোনো মেয়ে মানুষ দেখলে যা মুখে
আসে তাই বলে, নিজের বউ এর সাথে কি করে, কিভাবে করে ফিগার কেমন এমন ভাবে বলে Read more »

বুড়ো বয়সে হাত মারা

দিল সাহেব সত্তুর ছুই ছুই বিপত্নীক অবসরপ্রাপ্ত উচ্চপদস্থ সরকারী কর্মকর্তা।
ছেলেমেয়েরা দেশদেশান্তরে ছড়িয়ে। শহরে প্রাসাপোদম বাড়ীতে বাস করেন। পরিবারে
চাকরীজীবি পুত্র ও পুত্রবধু ছাড়া আর কেউ থাকেন না। আর আছে ড্রাইভার আর কাজের বুয়া।
সারাদিন বাসায় একা থাকতে হয়, হাঁপিয়ে ওঠেন পত্রিকা পড়ে আর টিভি দেখে। মাঝে
মাঝে কোর্টকাছারিতে ঘুরে বেড়ান, বন্ধুবান্ধবের বাসায় যান। বেকার লোকদের কেউ
পাত্তা দেয় না। এমনকি বাসার কুৎসিত কাজের বুয়াটাও না। ওই বেটির না আছে চেহারা, Read more »